ক্যাটেগরিঃ ব্লগালোচনা

এত দ্বারা সকল সম্মানিত ব্লগারদের জ্ঞাতর্থে জানান যাইতেছে যে, আপনারা যারা নবীন, প্রবীণ, উঠতি, পড়তি ব্লগার আছেন অন্য ব্লগারদের নিকট ছ্যাকা খাইয়াই হউক আর ব্লগারসমাজে নিজেদের জনপ্রিয়তা যাচাই করিবার নিমিত্তেই হউক, দয়া করিয়া আর “ব্লগ বিদায়” “ব্লগাসক্তি ও তার সমাধান, “বিদায় ব্লগ..” জাতীয় টাইটেল দিয়া আর পোস্ট দিবেন না। ইহাতে অন্য ব্লগারদের উপর শারীরিক, মানসিক এবং সর্বোপরি অর্থনৈতিক ক্ষতি সাধিত হইয়া থাকে। কাজেই আপনারা যাহারা এই ধরনের পোস্ট ভবিষ্যতে দেওয়ার চিন্তাভাবনা করিয়াছেন, সেই চিন্তা এখনই ডাস্টবিনে ছুড়িয়া ফেলুন। অন্যথা, ব্লগারকূলের দ্বারা তাহাদের মানসিক, শারীরিক এবং আর্থিক ক্ষতিসাধনের জন্য বিপুলসংখক ক্ষতিপূরণ জাতীয় মামলা খাওয়ার সম্ভাবনা রহিয়াছে।

আরও জানান যাইতেছে যে, যাইবেন যখন যান, কিন্তু যাওয়ার পূর্বে পোস্ট মুছিয়া যাওয়ার মত ধৃষ্টতা করিবেন না।কারণ যেই মুহূর্তে আপনার পোস্টটি প্রকাশিত হইল এবং তাহার মধ্যে কেউ মন্তব্য করিয়া বসিল তখন ব্লগের নিয়ম অনুযায়ী সেই পোস্টখানির একক মালিকানা আপনার হাত ফস্কাইয়া শেয়ার হোল্ডারদের (মন্তব্যকারীদের) মধ্যে চলিয়া যাইবে (সুত্র: সম্মানিত ব্লগার আইরিন)। কাজেই ইহা আর আপনার একক সম্পত্তি বলিয়া বিবেচিত হইবে না। এই ক্ষেত্রে উল্লেখ্য যে, যদি আপনার পোস্ট এর কুমড়ার চেয়ে জবাবের বীচি (ইহা আমি হৃদয়ে বাংলাদেশ এর মন্তব্য থেকে ধার করিয়াছি)বড় হইয়া থাকে সেক্ষেত্রে সিংহভাগ মালিকানা সেই জবাবের বীচি মন্তব্যকারীর দখলে চলিয়া যাইবে। এক্ষেত্রে একটি কথা না বলিলেই নয়, সম্মানিত ব্লগার উত্তর পুরুষ এর মন্তব্য যেহেতু বরাবরই পোস্ট এর তুলনায় বড় হইয়া থাকে, কাজেই এই আইন অনুযায়ী অধিকাংশ পোস্ট এর সিংহভাগের মালিকানা তিনি ইতোমধ্যেই পাইয়াছেন।

আর ও উল্লেখ্য যে, সাম্প্রতিক ঘটনা বিশ্লেষণে দেখা গিয়াছে যে পোস্ট মুছিয়া দেয়ার মত জঘন্য অপরাধের পথিকৃত সম্মানিত ব্লগার জিনিয়াকে অভিযুক্ত করিয়া কঠিন শাস্তি প্রদান করা যাইতে পারে। এই ক্ষেত্রে বিপদের গন্ধ আগে ভাগে বুঝিতে পারিয়া ব্লগার জিনিয়া মহান দুদকের কাছে তার কেইসটি পাঠানোর জন্য অলরেডি আপিল করিয়াছে বলিয়া বিশ্বস্ত সুত্র থেকে জানিতে পারিয়াছি। কিছুতেই যাহাতে উনি দুদক পর্যন্ত পৌছাতে না পারেন তাই সম্মানিত ব্লগারদের দুদকের অফিসের সামনে ব্লগার বন্ধন এর আহ্বান করা যাইতেছে।

এখন ব্লগারকতৃক ছ্যাকা না খাওয়া এবং ছ্যাকা দেওয়া থাকিয়া বিরত থাকিবার কৌশল হিসাবে সম্মানিত ব্লগারদের জানান যাইতেছে যে, যাহার মন্তব্য বা পোস্ট পড়িলেই আপনার মেজাজ খারাপ হইয়া যাওয়ার আশঙ্কা আছে, তাহার পোস্ট ওপেন করা থাকিয়া বিরত থাকুন। যদি ভুল করিয়া চোখে পড়িয়াও যায়, তাহা হইলে কমপেউটার থাকিয়া কিছুক্ষণ দূরে সরিয়া থাকুন। জোরে জোরে শ্বাস নিন। আস্তে আস্তে শ্বাস ছাড়িয়া দিন। তাহাতেও রাগ প্রশমিত না হইলে বিডিনিউজ এর বিনোদন পাতা পরিভ্রমন করুন। প্রিয় নায়িকার কী ছবি মুক্তি পাইতেছে খবর নিন। দেখিবেন আস্তে আস্তে মন ভাল হইয়া উঠিতেছে। এরপর আবার ব্লগে বসুন। প্রিয় ব্লগার এর ব্লগ ভিজিট করুন। নতুবা নিজে নতুন পোস্ট লিখুন।

ঘোষনা শেষ। এখন আপন কাজে ফিরিয়া যাইবার জন্য ব্লগারদের অনুরোধ করা যাইতেছে।