ক্যাটেগরিঃ আর্ত মানবতা

 

আমাদের সহব্লগার সুলতান মির্জার পক্ষ থেকে পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে মানবিক সাহায্যের জন্য কার্যকর প্রস্তাবটি আমরা পাই শুক্রবার ২৯ জুন ২০১২ তারিখে। তারপর সর্বব্লগার আইরিন সুলতানা, কৌশিক আহমেদ, মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, সুলতান মির্জা, উত্তরপুরুষ, মঞ্জুর মোর্শেদ, জাহেদ উর রহমান, নুরুন্নাহার শিরীন, সুমিত চৌধুরীসহ অনেকে নানাভাবে উদ্যোগী হয়ে, সময়-শ্রম দিয়ে এর জন্য প্রয়োজনীয় সকল ব্যবস্থা নেয়ার, অর্থ সংগ্রহ করার এবং যোগাযোগ রক্ষার কাজ করেন। এদের মধ্যে যারা সবচে কষ্টকর কাজটি করেছেন, অর্থাৎ দুর্গত এলাকায় গিয়েছেন, সেখানে থেকেছেন ও বিতরণ কাজ করেছেন তারা হলেন আরিফ হোসেন সাঈদ, কৌশিক আহমেদ, আলোর সন্ধানে, মঞ্জুর মোর্শেদ, সুলতান মির্জা, সুমিত চৌধুরী এবং সাংবাদিক হাসান বিপুল। ঢাকা থেকে ৫ জুলাই ঢাকার ব্লগাররা রওয়ানা দেন এবং কক্সবাজারের ঝিলংজাতে ত্রাণ কার্যক্রম শেষ করে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন শুক্রবার ৬ জুলাই রাতে।

আমি এই সৌভাগ্যটি নিজে থেকেই গ্রহণ করতে চাই। আমি বিডিনিউজ২৪ ব্লগের সকল ব্লগার ও পাঠকের পক্ষ থেকে তাদের সকলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমরা আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ এই উত্তম কাজটি সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার জন্য। এর মাধ্যমে একটি দিকে এই ব্লগ পরিবারের যাত্রার সূচনা হলো। আমরা দেখলাম তারাও পরে। এবার খুঁজে বের করার পালা, দেখার পালা আর কতদূর যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হওয়া সম্ভব।

ব্লগার আরিফ হোসেন সাঈদ সম্বন্ধে দুটি কথা আমি বলতে চাই। তিনি নিজে চট্টগ্রাম গিয়েছেন। সেই সাথে তার সবচে বড় যে অবদানটি তা হলো তার ৫০ টাকা চাঁদা হিসেবে তহবিলে দান করা। তিনি সম্ভবত ছাত্র এবং নিজে আয় করেন না। এই মুহূর্তে তার হাতে যা ছিল তার ৫০% টাকা তিনি এখানে দিয়েছেন, যা আমরা সুলতান মির্জার ব্লগটির আপডেট থেকে জেনেছি। তার মনোভাবের সৌন্দর্য, মনের স্বচ্ছতা, পরিচ্ছন্নতা ও সাহস আমাদের সকলের জন্য একটি বিরল আদর্শ হয়ে থাকল।

তার এই অবদান সম্বন্ধে কতই না সুন্দর ভাবে সিনথিয়া বলেছেন, “আরিফ হোসেন সাঈদ, আপনার জয় হোক। আপনি ১০০ টাকা থেকে ৫০ টাকা দিলেন, মানে ৫০%, আর আমি ২ লাখ থেকে দিলাম বিশ হাজার মানে ১০%। পরিমাণে বেশী দিয়েও আপনার থেকে তালিকায় নীচে অবস্থান নিলাম। ভবিষ্যতে আপনার মত ৫০% বা তার ও বেশি দিতে চাই। …”

সর্বসাকল্যে যে অর্থ এবার উঠেছে তা নিয়ে এই কমিউনিটির যাত্রা শুরু হলো। শুরু হিসেবে এটি যথেষ্ট সন্তোষজনক। তবে ভবিষ্যতে আমরা আরও ভাল করতে পারব বলেই আমার দৃঢ় বিশ্বাস। আমরা ১০ হাজার পাঠক যদি গড়ে ১০০ টাকা করেও দিতে পারি তবে আমাদের সংগ্রহ তখন দাঁড়াবে ১০ লক্ষ টাকা।

আমাদের সহব্লগার জিনিয়া একটি ফাউন্ডেশন স্থাপনের আবেদন করেছিলেন। আমি জানি যত কারণে লোকে ঢাকা ক্লাবে যান, এক্স-ক্যাডেটরা ক্যাডেট কলেজ ক্লাবে যান ইত্যাদি সেগুলোর মধ্যকার একটি প্রধান কারণ বা উদ্দেশ্য কী? কিন্তু যারা এখানে লিখেন এবং পড়েন তারা ব্যবসা বা পদের জন্য লবি করতে আসেন না। তাদের সম্বল শুধু একটু ভাবনা আর সততা। এই ব্লগটি বাংলাদেশের সবচে উন্নত, পরিচ্ছন্ন ও সুগঠিত ব্লগ হিসেবে আমার কাছে মনে হয়েছে; এমন একটি কমিউনিটি একে কেন্দ্র করে তৈরি হয়েছে যার দুর্গম পথে চলার সামর্থ্যের প্রথম প্রকাশ আমরা দেখতে পেলাম। এখন আমরা জিনিয়ার প্রস্তাব মত একটি ফাউন্ডেশন নির্মাণ করতে পারব না কেন? আমরা যদি একটি নমুনা, একটি নজির তৈরি করতে না পারি এবং ধারাটি সফল ও নিষ্কলুষভাবে বজায় রাখতে সমর্থ না হই তবে অন্যদের কাছ থেকে এতকিছু আশা করব কিভাবে?

আমাদের সকলেরই আর্থিক সীমাবদ্ধতা রয়েছে। রয়েছে আত্মীয়-স্বজন, প্রতিবেশী, বাড়ীতে কাজ করেন যে ছেলেটি বা মেয়েটি, গাড়ীর চালক বা অফিসের সহকর্মীরা। তাদের প্রতিও আপনাদের দায়িত্ব অনেক এবং প্রকৃত প্রস্তাবে সে দায়িত্বই অগ্রাধিকার প্রাপ্য। সেটিই যে আসল জগত, আসল ক্ষেত্র। তারপরও আমরা যেকোনো ভয়াবহ বন্যা বা সিডরের মতো দুর্যোগে এই ব্লগকে প্ল্যাটফর্ম হিসেবে নিয়ে ভবিষ্যতে সহায়তা করে যেতে পরব। ব্লগার ও পাঠকরা যেহেতু কেবল এই ব্লগেরই লেখক ও পাঠক নন, তবুও তাদের কাছে আবেদন করছি, অন্তত একটি বা দুটিতে অংশ নিন। মাসে ১০ টাকা বা ৫০ টাকা বা ১০০ টাকা এমন বেশী কোনো টাকা নয়।

যদি আমরা ১০০০ পাঠক গড়ে ১০ টাকা করে প্রতি মাসে দেই তবে আমাদের মাসিক জমা হবে ১০ হাজার টাকা; বছরে হবে এক লক্ষ টাকারও বেশী। তবে আমরা এরূপ সিদ্ধান্ত নিলে এই টাকার পরিমাণ যে বাস্তবে বাৎসরিক ৩/৪ লাখ টাকা হবে বা তারও দ্বিগুণ হবে সে বিষয়ে আমি খুবই আশাবাদী। এই টাকা থেকে এবং দুর্যোগের সময় এককালীন হিসেবে বিশেষ অনুদান রূপে আমরা আরও যা দেব তা দিয়ে ভালভাবে দুর্গত মানুষকে সহায়তা করতে এগিয়ে যেতে পারব।

সমবায়ের শক্তি অনেক, সম্ভাবনা বিশাল; সমস্যা কেবল একটিই – আর তা হলো আস্থাহীনতা। আমরা কি তবে পারব না? আমরা না পারলে পারবে কে? আমরা কি জিনিয়ার প্রস্তাব বাস্তবায়নের সম্ভবপরতা নিয়ে ভেবে দেখতে পারি না?

পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে মানবিক সাহায্যের প্রস্তাবনা – সুলতান মির্জা
ব্লগাররা যাচ্ছেন দুর্যোগপূর্ণ এলাকায় ব্লগারদের সাহায্য নিয়ে – আরিফ হোসেন সাঈদ
মিশন একমপ্লিশড! ব্লগারদের আন্তরিক অভিনন্দন! – কৌশিক আহমেদ
বিডি ব্লগ ফাউন্ডেশন গঠন: সময়ের দাবি – জিনিয়া
n

বিষয়ভিত্তিক বিভাজনসহ ব্লগসূচী